Author: admin

রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ

ইতিহাস ও অবস্থান: রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ, মুক্তিযুদ্ধপূর্ব প্রতিষ্ঠিত ৪ টি ক্যাডেট কলেজ এর মধ্যে সর্বশেষতম, এ প্রতিষ্ঠান টি ১৯৬৪ সালের ১১ ফেব্রুয়ারী প্রতিষ্ঠা লাভ করে। রাজশাহীর চারঘাট থানার সারদার মুক্তারপুর গ্রামে নৈসর্গিক প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মাঝে পদ্মার তীরে সগর্বে মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে আছে রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ। রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ এর প্রতিষ্ঠাকালীন নাম ছিল আইয়ুব ক্যাডেট কলেজ। পরবর্তীতে মুক্তিযুদ্ধককালীন সময়ে এর নাম দেয়া হয় মুক্তারপুর ক্যাডেট কলেজ। স্বাধীনতাত্তোর সময়ে এর নাম রাখা হয় রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ শিক্ষাব্যবস্থা: প্রতিষ্ঠানটির মূলনীতি – প্রভু আমার জ্ঞান বাড়িয়ে দাও এবং মটো- রাব্বী জিদনি ইলমা। প্রতিষ্ঠানটিতে সপ্তম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ইংরেজি মাধ্যমে পাঠদান করা...

Read More

বায়ুদূষণ মুক্ত শহরের তালিকায় সবচেয়ে এগিয়ে আছে রাজশাহী

পদ্মা নদীর তীরে অবস্থিত বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গের রাজশাহী বিভাগের ৯৭ বর্গকিলোমিটার আয়তনের বিভাগীয় শহর হচ্ছে রাজশাহী। প্রাচীন বাংলার লক্ষণৌতি বা লক্ষনাবতি, পুন্ড্র ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য শহর ছাড়াও রাজশাহী তার আকর্ষণীয় রেশমীবস্ত্র, আম, লিচু এবং মিস্টান্নসামগ্রীর জন্য প্রসিদ্ধ। রেশমীবস্ত্রের কারণে রাজশাহীকে রেশমীনগরী বলে আখ্যায়িত করা হয়। তবে এশিয়ার অন্যান্য সব জায়গার মত রাজশাহী তেও গ্রীষ্মের সময়ে বাতাসে ধূলিকণার পরিমাণ অনেক বেশি বেড়ে যায়। মাঠ এবং রাস্তার ধূলোবালি, শহরের প্রান্তে ইটের ভান্ডারের ধোঁয়া, বিভিন্ন বিষাক্ত ও ক্ষতিকারক গ্যাস ও কণা ইত্যাদি জিনিস দিয়ে এসব শহরের বায়ু দূষিত থাকে সবসময়। তবে হটাত করে রাজশাহী শহরের বায়ুতে এমন এক পরিবর্তন আসে যা অতীতের সব রেকর্ড...

Read More

পাসপোর্ট তৈরির পদ্ধতি

হজ্জ করতে, ব্যবসায়িক কাজে, পড়ালেখার প্রয়োজনে, চাকুরির প্রয়োজনে, চিকিৎসার জন্য, ভ্রমন করতে, ঘুরতে, অবসরে বিনোদনের জন্য কিংবা অন্যান্য বিভিন্ন কাজে বিদেশে যেতে চান? সমগ্র বিশ্ব এখন হাতের মুঠোয়। আজকাল বিভিন্ন প্রয়োজনে পৃথিবীর বিভিন্ন রাষ্ট্রে ঘুরে বেড়ানো একটা সাধারণ ব্যাপারে পরিনত হয়েছে। আর এই বিদেশে যাওয়ার জন্য যে জিনিসটা আপনার প্রয়োজন তা হল পাসপোর্ট। পাসপোর্ট করা বা পাসপোর্ট তৈরি করা এক সময় ছিল খুব ঝামেলার ব্যাপার। কিন্তু সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে পাসপোর্ট তৈরির পদ্ধতিতেও আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে। এখন ঘরে বসেই পাসপোর্ট তৈরির প্রথমিক ধাপ গুলো Online-এর মাধ্যমে সম্পন্ন করা খুব সহজ। এতে আমরা আমাদের সময়ের অপচয় রোধ করতে পারি। অন্য...

Read More

সাবাস বাংলাদেশ

বাংলাদেশের মানুষের মনে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকে জাগরুক রাখতে, মুক্তিযুদ্ধে শহীদের আত্মত্যাগের প্রতি সম্মান জানাতে, তরুন প্রজম্নের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও চেতনাকে সমুন্নত রাখতে বিভিন্ন স্থানে আমরা দেখতে পাই মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ভাস্কর্য। মুক্তিযুদ্ধকে মহিমান্বিত করার জন্য ভাস্কর্য গুলো সমহিমায় বিরাজমান। ভাস্কর্য গুলো জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, সরকারি স্থাপনা, গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মোড়ে নির্মিত হয়েছে। ১৯৯১ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে শিল্পী নিতুন কুন্ডূ নির্মিত “সাবস বাংলাদেশ” একটি দৃষ্টিন্দন ভাস্কর্য। এটি এমনি একটি প্রতীকি ভাস্কর্য, যার মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধে আংশ গ্রহনকারী তরুনদের দেশপ্রেম, সরলতা, গতিময়তা, এবং মুক্তিযুদ্ধের তেজস্বী ভাব প্রকাশ পেয়েছে। নির্মানশৈলী এবং নান্দনিকতায় ভাস্কর্যটি অনবদ্য। তাৎপর্যঃ স্বাধীনতার স্মৃতিকে চির অম্লান রাখতে, এবং...

Read More

শাহ মখদুম বিমান বন্দর

নতুন কিছু সৃষ্টি বা আবিষ্কার মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। তাই তো মানব সভ্যতার জন্ম লগ্ন থেকে অদ্যাবধি অজানাকে জানার জন্য নিরন্তর ছুটে চলা। চাকা আবিষ্কার আদিম মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার অগ্রগতির চাকা আধুনিক সভ্যতার দিকে ঘুরিয়ে দিয়েছিল। এরপর এলো সেই মহেন্দ্রক্ষণ! রাইট ভাতৃদ্বয় আবিষ্কার করে ফেললেন বিমান। যাতায়াত ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় এলো বৈপ্লবিক পরিবর্তন। এখন মানুষ শব্দের বেগ, আলোর বেগে যাতায়াতের চেষ্টা করছে। স্বপ্ন দেখে মঙ্গল গ্রহে যাওয়ার। বহিবিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশও দ্রুত যাতায়াতের মাধ্যম হিসাবে আকাশ পথকেই বেছে নিয়েছে।যার ফলে ঢাকা, চট্টগ্রাম,সিলেট, রাজশাহী, যশোর, সৈয়দপুর (নিলফামারী), বরিশাল ও কক্সবাজারে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বিমান বন্দর। এসব বিমান বন্দর দিয়ে আকাশপথে আন্তজাতিক...

Read More
error: Content is protected !!