Author: admin

হযরত শাহ মখদুম রুপোশ (রহঃ) এর মাজার

ইসলাম প্রচারে যুগে যুগে বাংলার মাটিতে পদধুলি পড়েছে অনেক সাধু, আউলিয়ে, পীরের। তাদের উদারতা, মহত্ত্ব, মহানুভবতা এ দেশের মানুষকে করেছে মুগ্ধ। যার ফলশ্রুতিতে সাধারণ মানুষ বিশেষ করে শোষিত ও নির্যাতিত মানুষেরা দলে দলে ইসলাম এর পতাকাতলে আশ্রয় নেয়। শাহ মখদুম (রহঃ) ছিলেন ঐ সকল আউলিয়া, পীর দের মধ্যে অন্যতম। তার আগমনে উত্তরবঙ্গ বিশেষ করে রাজশাহী অঞ্চলে ইসলামের বিস্তৃতি ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পায়। পরিচিতি এবং অবস্থান: বরপীর আব্দুর কাদের জিলানী (রহঃ) এর নাতি হযরত মখদুম শাহ (রহঃ) এর মাজার রাজশাহী এর দরগাপাড়ায় অবস্থিত। পদ্মার তীরে এবং রাজশাহী কলেজের পশ্চিম পাশে অবস্থিত এ মাজার। শাহ মখদুম (রহঃ) এর প্রকৃত নাম আব্দুল কুদ্দুস।...

Read More

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী শহরের অদুরে মাত্র ৫ কি: মি: পূর্বে মতিহার এর সবুজ চত্বরে অবস্থিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। প্রায় ৩০০ হেক্টর জমির উপর সগর্বে মাথা উঁচু করে দাড়ানো রাবি(রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়) ক্যাম্পাস ১৯৫৩ সালের ৬ জুলাই প্রতিষ্ঠা লাভ করে। দেশের অনেক উথান-পতন এর স্বাক্ষী দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ঐতিহ্যবাহী এই প্রতিষ্ঠান টি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মহিমায় মহিমান্বিত। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এর ইতিহাস: মাত্র ১৬১ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আজ ৩৩ হাজার শিক্ষার্থীর জ্ঞান আহরণ কেন্দ্র। শুরুটা যদিও এতটা মসৃণ ছিল না। সেই ১৯৫০ সাল থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবিতে আন্দোলন শুরু হয় এবং তার ফল ধরা দেয় ১৯৫৩ সালে যা বিশ্ববিদ্যালয়...

Read More

ঐতিহ্যবাহী বাঘা শাহী মসজিদ

রাজশাহীর তথা পুরো বাংলাদেশেরই অন্যতম ঐতিহাসিক নিদর্শন বাঘা শাহী মসজিদ। বাংলাদেশের ৫০ টাকার নোট এবং ১০ টাকার ডাকটিকিট এ শোভা পেয়েছে বাঘা মসজিদ এর প্রতিকৃতি। পর্যটনশিল্পের অপার সম্ভাবনাময় এ মসজিদটি উপযুক্ত রক্ষনাবেক্ষণ এর অভাবে এর সৌন্দর্য হারাচ্ছে। এ অঞ্চলে ইসলাম প্রচারকারী এক সাধকের প্রতি সুলতান নাসরাত শাহ এর উপহার। অবস্থান: ইতিহাস বিজরিত বাঘার এ শাহী মসজিদ রাজশাহী শহর থেকে ৪৮ কিলোমিটার দুরে পদ্মার তীরে প্রকৃতির নৈসর্গিক সৌন্দর্যের মাঝে বাঘা উপজেলায় অবস্থিত। ইতিহাস: বাঘার শাহী মসজিদ প্রায় ৫০০ বছরের পুরনো এক ঐতিহ্যবাহী মসজিদ যার নির্মাতা সুলতান নসরাত শাহ। হযরত শাহদৌলা যখন বাংলার উত্তর অঞ্চলে ইসলাম প্রচার করা শুরু করেন তখন...

Read More

বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর

প্রায় ১১ হাজার নিদর্শন সমৃদ্ধ বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর। এর বিশালাকার এবং সমৃদ্ধ সংগ্রহের জন্য এটি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম সেরা জাদুঘর হিসেবে স্বীকৃত। অবস্থান: ইতিহাস সমৃদ্ধ ঐতিহাসিক এ জাদুঘর রাজশাহী জেলার হেতম খাঁ হাসপাতালের সম্মুখে অবস্থিত। দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম এ প্রত্নতত্ত্ব সংগ্রহশালা শতবর্ষ ধরে বাংলার ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে আছে। পরিচিতি: বাংলাদেশের প্রাচীনতম জাদুঘর হিসেবে গন্য বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর ১৯১০ সালে নির্মিত হয়। প্রাচীনকালে রাজশাহী এবং নাটোর অঞ্চলের রাজাদের বিভিন্ন ব্যক্তিগত সংগ্রহ, দৈনন্দিন ব্যবহার্য, কারুকার্য খচিত বিভিন্ন সৌখিন সংগ্রহ প্রভৃতি এখানে শোভা পেয়েছে। জাদুঘরটি কেবল প্রদর্শনী ই নয়, প্রাচীন বাংলা নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে গবেষণা কার্যে ব্যবহৃত হয়। যে কারণে এর নাম...

Read More

সাহেব বাজার

উনবিংশ শতাব্দীর শেষের দিকেও রাজশাহী শহরে বড় আকারের কোন বাজার ছিল না। গ্রাম কেন্দ্রিক কিছু বাজার বন্দর ছিল রাজশাহী জেলার বাঘা, মীরগঞ্জ, তাহেরপুর, নাটোর, প্রেমতলী, বায়াতে। রাজশাহী শহরে স্থায়ী কোন হাট বাজার না থাকলেও অষ্টাদশ শতাব্দীর মাঝামঝি থেকে উনবিংশ শতাব্দীর পুরোটাই পদ্মা তীরের রামপুর-বোয়ালিয়া বন্দরটি ছিল বাংলাদেশের মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম বন্দর। কলকাতার পরেই এর অবস্থান ছিল। রাজশাহী জেলা সহ চলন বিল এবং উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে ধান, পাট, কাঁচা রেশম সহ নীল ইত্যাদি এই বন্দরে জমা হতো তারপর জাহাজে সেগুলো ভারতের বিভিন্ন প্রদেশ সহ মধ্যপ্রাচ্য, আফ্রিকা, ইউরোপ, বসরা, মক্কা, জেদ্দার বাজার সমূহে যেতো। তবে, এখানে ক্ষুদ্র একটি বাজার ছিল...

Read More
error: Content is protected !!